Samokal Potrika

সাহিত্য ও সাহিত্যিকের ধর্মীয় শ্রেণী বিভাজন একটি মানসিক ব্যধি। সাহিত্যগত কোন ধর্ম ছাড়া কবি বা লেখকের কোনও ধর্ম থাকেনা। পাঠকের ধর্ম তার পাঠ্য অভ্যাস, সাহিত্যের ধর্ম সমকালকে উপস্থাপন। এই দুইয়ের মাঝে যখন দ্বন্দ্ব বা প্রশ্ন দেখা যায়, তখনই বোঝা যায় সমকালীন সাহিত্য ও সাহিত্যিক পথ ভুল করেছে।এর অন্যতম কারণ অযোগ্য কলমের বিজ্ঞাপনী দাদাগিরি। সাহিত্য সাধকের অভাব। উপযুক্ত প্রকাশ মাধ্যম ও দক্ষ সম্পাদকের অনুপস্থিতি। অর্থমূল্য প্রলোভ সাহিত্যজগৎকে নিম্ম মানের ও প্রচার সর্বস্ব লোলুপ ফড়েদের দারা বন্দি করে রেখেছে। বঞ্চিত হচ্ছে পাঠক।প্রকৃত সাহিত্য সাধক অন্তরালবর্তী। তাকে পাঠকের কাছে পৌছে দেওয়ার উদ্যোগ নেই। প্রকাশনাও আজ অর্থলোভী। মুনাফাহীন সাধনাকে পাগলের প্রলাপ মনে করে। তার মাশুল কিন্তু আমাদের গুনতেই হবে। আমরা ভুলে যাচ্ছি সাহিত্য শুধু মানব জীবনের প্রতিফলন নয়, সমকালীন ইতিহাসেরও সাক্ষ্য বহন করে। আগামীতে চলন্ত বর্তমান নিয়ে যে শূণ্যতা সৃষ্টি হবে তার দায় আমরা কোনোভাবেই অস্বীকার করতে পারবো না। শঙ্খশুভ্র মিত্র ।

ঢেউ এলে ভেঙে  ফেলি নীরব জন-স্রোত!

পাতা ঝড়ার মরশুম।

মুঠো  মুঠো রোদ নিয়ে ছুটে যাই তটরেখা . . . . . . . . . . .

Read More

ডা:সুজাউল্লাহ্ ডাক্তারখানায় ঢুকে চেয়ারে বসলেন আয়েস করে। আর্দালী যে কোথায়! হাঁক দিলেন , " . . . . . . . . . . .

Read More

আপনার হাতে একটা পত্রিকা এসেছে। কবিতার পাতা ওল্টাচ্ছেন। একটা লেখায় চোখ আটকে গেল !

হালুম ! . . . . . . . . . . .

Read More

হে বীর, কোন ভয়ে তুমি ভীত? শাসক না শোষণে?

তোমার মুঢ়তায় লুণ্ঠিত মাগো কুণ্ঠিত মুঢ় . . . . . . . . . . .

Read More

এসব পাখিরা ওড়ে না

এখন যন্তরে মন্তরে।

বোবা কালা আর ডানা ছাঁটাদের শিকল পরার ছল।

যদিও . . . . . . . . . . .

Read More

. . . . . . . . . . .

Read More

মেঘের ঝিলিমিলি দেখতে দেখতে পুকুরের রোদ বাঁক দেয় বিভ্রম 

 

ঝুঁকে দেখছে একক বাঁশের মরা . . . . . . . . . . .

Read More