Samokal Potrika

সাহিত্য ও সাহিত্যিকের ধর্মীয় শ্রেণী বিভাজন একটি মানসিক ব্যধি। সাহিত্যগত কোন ধর্ম ছাড়া কবি বা লেখকের কোনও ধর্ম থাকেনা। পাঠকের ধর্ম তার পাঠ্য অভ্যাস, সাহিত্যের ধর্ম সমকালকে উপস্থাপন। এই দুইয়ের মাঝে যখন দ্বন্দ্ব বা প্রশ্ন দেখা যায়, তখনই বোঝা যায় সমকালীন সাহিত্য ও সাহিত্যিক পথ ভুল করেছে।এর অন্যতম কারণ অযোগ্য কলমের বিজ্ঞাপনী দাদাগিরি। সাহিত্য সাধকের অভাব। উপযুক্ত প্রকাশ মাধ্যম ও দক্ষ সম্পাদকের অনুপস্থিতি। অর্থমূল্য প্রলোভ সাহিত্যজগৎকে নিম্ম মানের ও প্রচার সর্বস্ব লোলুপ ফড়েদের দারা বন্দি করে রেখেছে। বঞ্চিত হচ্ছে পাঠক।প্রকৃত সাহিত্য সাধক অন্তরালবর্তী। তাকে পাঠকের কাছে পৌছে দেওয়ার উদ্যোগ নেই। প্রকাশনাও আজ অর্থলোভী। মুনাফাহীন সাধনাকে পাগলের প্রলাপ মনে করে। তার মাশুল কিন্তু আমাদের গুনতেই হবে। আমরা ভুলে যাচ্ছি সাহিত্য শুধু মানব জীবনের প্রতিফলন নয়, সমকালীন ইতিহাসেরও সাক্ষ্য বহন করে। আগামীতে চলন্ত বর্তমান নিয়ে যে শূণ্যতা সৃষ্টি হবে তার দায় আমরা কোনোভাবেই অস্বীকার করতে পারবো না। শঙ্খশুভ্র মিত্র ।

যে লোকটি সবার খুঁত ধরতো, একদিন জানতে পারলাম তার একটা চোখ নেই । প্রপিতামহের বয়সী যে মানুষটা রোজ . . . . . . . . . . .

Read More

রামকেষ্ট দাদা (Ramkrishna Bhattacharya Sanyal)খামোখা পূজোর মধ‍্যে মাতা ঘরম করি ফেললেন,অভিমানী হলেন কি না শেষে . . . . . . . . . . .

Read More

রেস্তোরাঁতে কেন যান ? খাবার খেতে ? সত্যি ? নামী দামী রেস্টোরেন্ট অথবা ব্রাণ্ডেড হোটেল হলে ? . . . . . . . . . . .

Read More