Samokal Potrika

      আর পাঁচটা দিনের মতোই ফাল্গুনের প্রথম দিনটাও কেটে গেল। শহরের প্রতিটি মানুষের কাছেই দিনটা ছিল মধুর। আকাশে বাতাসে মিলনের সুর। ভ্রমর -ভ্রমরীরা ব্যস্ত ফুলে ফুলে মধু সংগ্রহ করতে। নিমকি তখন ব্যস্ত জীবনের সম্পাদ্য বুঝতে।

      ঘড়িতে রাত তখন ১১ টা বেজে ৪৫ মিনিট। নিমকি তখনও পালঙ্কে বসে জীবনের সম্পাদ্য কষতে ব্যস্ত। বাইরে কুকুরের কান্নারা শব্দপট তৈরী করেছে। তার মধ্যেই বেজে উঠলো কম্পিউটার টেবিলে রাখা মুঠোফোন। ওপারে বহুদিনের পরিচিত এক কণ্ঠস্বর, আঁখি। স্মৃতিরা আজও তাড়িয়ে বেড়ায় ।

      স্মৃতির দৃশ্যপটে ৬ বছর আগের ঘটনা। সবেমাত্র উত্তুরে হাওয়া বইতে শুরু করেছিল। গাছে গাছে পাতা ঝরার দিন। তার সাথেই ঝরে গিয়েছিল ভালো থাকার কারণটাও। অনুপমের সাথে নিমকির দুই বছরের পরিচয়। প্রথম ৬ মাসের রসায়নটা মধুর হলেও বাকিটা অপরিণত ভ্রম।

      টিউশন যাওয়ার পথে আঁখি ও অনুপমের সম্পর্কটা জানতে পারল নিমকি , আঁখির মুখেই। আঁখি অবশ্য পূর্বজ্ঞাত নিমকি ও অনুপমের সম্পর্কে। কিন্তু নিমকির অনুপম আর আঁখির অনুপম যে একই রক্তমাংসে গড়া মানুষ - তা হয়ত আঁখির অজানা ছিল।আঁখির চোখের কোনায় একফোটা জলের চিহ্ন কিন্তু নিমকির দৃষ্টি এড়ায়নি। হতে পারে ধুলিকণার টুকরো আঁখির চোখে অশ্রুফোটা আবির্ভাব করেছিল। আঁখির স্পষ্ট স্বীকারোক্তি দুর্বলতা ওদিককার। আঁখির ভালোবাসার মানুষ নিলয়, প্রতিষ্ঠিত একজন।

      মধ্যাহ্নকালীন ভোজন সেরে নিমকি নম্বর ডাইল করে অনুপমের, উদ্দেশ্য সত্যের সন্ধান। তবে বিস্মৃত নিমকি ! অনুপমের গলায় সৃষ্টি হল আঁখির কথার পুনরাবৃত্তি। দুর্বলতা শুধুই ওদিককার, অনুপম মুক্ত বিহঙ্গী। এইভাবে নিমকির মনের ভ্রমের সূত্রপাত !

      তারপর কেটে গেছে ৬ টা বসন্ত। বদলেছে শহরের বৈশিষ্ট্য। কিন্তু আজও নিমকির জীবনে অপেক্ষারা জীবন্ত। তার সাথেই জীবন্ত সত্য - মিথ্যার বিভাজনরেখাটাও।

      আজ অনেকটা সময় পর আঁখির সাথে কথা হল নিমকির। ফেলে আসা বেশ কিছু ঘটনা এঁকে দিল মন খারাপ। - আঁখি আর নিলয়ের সম্পর্কে ছেদ পড়েছে বেশ কিছু সময় আগে। নিলয়ের সাথে কখনোই পরিচয় হয়নি নিমকির। তার সম্পর্কে যা কিছু জানা তা আঁখির মুখে শুনে শুনে অদৃশ্য ক্যানভাসে কোনো একজন হবে। হতে পারে কাল্পনিক।  

      নিলয় আজ অন্য শহরের বাসিন্দা। আঁখির দু'চোখে নতুন স্বপ্নের আনাগোনা। সে আর নিলয়ের শহরে যেতে চায় না , যেতে চায় না অনুপমের শহরেও। চায় নতুন করে প্রতিষ্ঠিতর আবডালে বাসা বাঁধতে। অনুপম একাধিক শহর ঘুরে বেড়িয়ে আজ ক্লান্ত। নিমকি উন্নতির ঊর্ধ্বগতিতে, খ্যাতি - সম্মানে ভরপুর।

      নিমকি আজও অনুপমের সাথে যোগাযোগ রেখেছে মিউচুয়্যাল জগতের সবুজ আলোয়। কথাও হয় মাঝে মধ্যে। নিমকির আবডালে সাফল্যের সিড়ি - যা আজও খুঁজে বেড়াচ্ছে আঁখি ও অনুপম । আর তাদের জীবনে স্বীয় ভ্রান্তিতে হারিয়ে ফেলা শুদ্ধ ভালোবাসার খোঁজে আজও হতাশ নিমকি সত্য - মিথ্যার বিভাজনরেখা ভেঙে সত্যের সন্ধান করতে !