Samokal Potrika

তোমরা বদল চেয়েছিলে, আমি বদলে গিয়েছি অন্বেষা,

নিচ্ছিদ্র বলয়ে আমি খেলেছি দোর্দণ্ডপ্রতাপ শাসকের পাশা।

সময়ের দাবী অথবা প্রয়োজন আমি স্বীকার করেছি

পেশি আস্ফালনের উর্বরতায় নিয়ত জল ঢেলেছি

মসনদ আমিকে গ্রাস করেছে অগ্নি বলয়ের দূর্বাশা

তোমরা বদল চেয়েছিলে, আমি বদলে গিয়েছি অন্বেষা ।

 

বিদ্রোহের আগুন নিভিয়ে দিতে শিখে নিয়েছি শাসন সন্ত্রাস

বদলে গিয়েই জেনে নিয়েছি স্বযত্নে বিরোধীতার সর্বনাশ।

চাষির লড়াইয়ে পাকানো ক্ষেতে আমি রোপণ করেছি ধান,

মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা খেলায় গাইতি হাতে নেমেছি কয়লা খাদান।

সর্বহারার দাবী সনদ নিয়ে কাঁপিয়ে তুলেছি গলি থেকে রাজপথ

আন্দোলনে আন্দোলনে গণতন্ত্রে জাগিয়ে তুলেছি প্রতিক্ষণের অভিঘাত

তোমরা বদল চেয়েছিলে, আমি বদলে গিয়েছি অন্বেষা,

রক্তের তুলি হাতে গ্রহণে এঁকেছি বিবর্তনের দিশা

 

তাই আমি আজ বদলের ক্যানভাসে রঙ ছুঁয়ে দিই বদলার

শোষণ পিড়ন শাসকের ধর্ম, ক্ষমতা আজ খোলা তলোয়ার

ধর্ষিতা নারী, লাঞ্ছিতা নারী, মায়ের সে বুক ফাটা কান্নার শব্দ

আগুন জ্বালিয়ে দিয়েছে মস্তিস্কে আমার, প্রাচীর গড়েছি ভণ্ডাব্দ

প্রতিবাদ আর প্রতিবাদ অধিকার ছিনিয়ে নেওয়ার বিচিত্র মারণযজ্ঞ

শ্লীলতার কাঁথায় আগুন জ্বেলে স্বসুদ্ধির মন্ত্র শিখিয়েছি আমি বিহঙ্গ

আজ আমি প্রলয় নিধি, কণ্ঠরোধী শাসক সর্বনাশা

তোমরা বদল চেয়েছিলে, আমি বদলে গিয়েছি অন্বেষা ।