Samokal Potrika

চড়াই উৎরাই পথে হাঁটছে বাবা,

বুকে আস্ত একটা খেজুর গাছ

হাজা ধ‍রা পায়ে

এখনো পথের শতাব্দী ঘূর্ণন,

মুথা ঘাসের শিকড় আর অর্জুন ছাল

ঘুটো ছাইয়ে শীতল রেখেছে পাকস্থলী।

বাবার অগ্নিকোণে যত আগুন দেখি

সেঁকে নিই মেরুদন্ড;

মাটি ভাঙচুর করা মানুষটি আজ মাটি খোঁজে,

মাটিতে বিছাতে চায় বুক।

রাস্তা হয়ে যাওয়া খেতগুলো

বাবাকে ডাকে না রবি বলে,

তবুও দাঁড়ায় চোখে বৃষ্টি নিয়ে, বীজ নিয়ে।