Samokal Potrika

আমায় ফিরতে দাও

একলা দাঁড়ানো শিমুল গাছের তলায়,

ক্ষুদ্র পৃথিবী শিমুল ছায়ায়।

বেঁচে থাকার আগুন ফুরিয়েছে ভাষা,

মৃতের ঢিবিতে অভিমান ভরে

মাংসাশীদের খাবারের খোঁজ।

 

আমায় ফিরতে দাও

সেই পলাশ তলায়।

ফুল ফোটেনি,

পলাশের মৃত কংকালে

আমার দুচোখ ইতিহাস সন্ধানী।

বেঁচে থাকার অনেক উপায়,

মানুষের মাংস বোধহয় তেতো।

তবে জীবন সন্ধানী এই হৃদয়

শরীরের শান্তি কামনা করে।

 

আমায় ফিরতে দাও

মায়ের শান্ত শীতল ক্রোড়ে।

পথচলতি কঙ্কালের ভিড়ে

আমি সঙ্গহীনতার শিকার।

বেঁচে থাকার জন্য

ব্যার্থ কবির বিরহী সুর অনভিপ্রেত।

পঁচাগলা মংসে গন্ধে

তোমার ঘুম ভাঙুক,

শান্তি চাইনা আমার।

আমায় ফিরতে দাও

সেই সবুজ পাহাড়ের কোলে।

মায়ের স্নেহমাখা মুখখানাটি

বুকের মধ্যে চেপে

আমায় ফিরতে দাও।

 

শেষ রক্তিম লগ্নে

শান্তির ক্লান্ত বাণী গুলো

আজ ব্যার্থ।

কয়েকটা কঙ্কালের অস্বস্তিতে

সজীবতা মুর্তমান বিভীষিকা।

আমায় ফিরতে দাও

মায়ের চরণতলে।

শেষ স্বপ্নে আমি মা কে চাই।

শিমুল তলায় ফুল নাই বা ফুটল

মায়ের জন্য হৃদয় কাঁপে আমার।

আমায় ফিরতে দাও

শান্তির শেষ নীড়

সেই ঘুমপাড়ানি মায়ের আঁচলতলায়।