Samokal Potrika

মধ্যরাতে নৈঃশব্দের স্রোতে ভাসে ক্ষুদ্র সাম্পান

সগোত্র জেনে তাকে ভালোবেসে জ্যোৎস্না কাছে ডাকে।

 

কালবৈশাখীর হাঁকে নিদ্রিত নদী জেগে ওঠে

বৃষ্টির চুম্বন তার গণ্ডদেশে টিপছাপ আঁকে।

 

বাতাসের মই বেয়ে আকাশেতে উঠে যায় মেঘ

ছিন্নরাতে ভিন্ন দুয়ার খুলে তারকারা ফোটে।

 

হৃদয়নিংড়ানো রক্ত দিয়ে কি মুক্তি কেনে চাঁদ

নাকি সে ক্ষমতায় আসীন হয় চুরিকরা ভোটে?

 

সাম্পানের যাত্রীরা সব সত্রাসে জ্যোৎস্নাবাস ছেড়ে

নির্ভয় আশ্রয় খোঁজে দুঃখহরণ কৃষ্ণগহ্বরে।