Samokal Potrika

আজ একসপ্তাহ ধরে কাজের মাসি আসছেন না।গৃহিনীর মেজাজ তুঙ্গে।সকাল থেকেই গজগজ করছে।একটু ভয়ে ভয়ে আছি।হ্যা কিংবা না -এ উত্তর দিচ্ছি!

---শোনো ,এই মাসে মাইনে কাটবো কিন্তু!

---হুম।

---খুব বাড় বেড়েছে!বলা নেই কওয়া নেই,এক সপ্তাহ হয়ে গেল।একটা লোকও তো ঠিক করে যেতে পারতো!এই ঠান্ডায় বাসন মাজতে মাজতে হাঁড় হিম হয়ে গেল।

---তাইতো!!

---তুমি যদি বাগড়া দিয়েছো তো দেখবে!সেবার মেয়ের শরীর খারাপ বলে কাঁদুনি গাইল আর তুমি দুশো টাকা দিয়ে দিলে ডাক্তার দেখানোর জন্য।বলি দুশো টাকা কি মাগনা নাকি!তোমার জন্যই এত মাথায় উঠেছে।এই জন্য বলি কাজের লোকেদের সঙ্গে একটু ডিস্টেন্স মেন্টেন করতে হয়।

 

---আহা ওরোম বলছো কেন!আপদে বিপদে তোমারও তো কত কাজ করে দেয়!

---এমনি দেয় নাকি!

গৃহিণী মুখ ঝামটা দিয়ে বলে ওঠে।

এটা সেটা আমিও কম দিই না!পুরোনো জামা কাপড় ,বিছানার চাদর --সবই তো দিয়ে দিই।

 

এমন সময় হঠাৎ পিছন দিকের গেট খোলার আওয়াজ কানে আসে।বাইরে বেড়িয়ে দেখি শীর্ণকায় ভদ্র মহিলাকে।ঠিক চেনা যাচ্ছে না যেন!

---দিদিগো ...আমার ছোট মাইয়াডারে বাঁচাইতে পারলাম না!

বলেই উঠোনে আছড়ে পড়ে।

বউ রান্নাঘর থেকে ছুটে আসে উঠোনে।হতভম্ব হয়ে চিৎকার করে ওঠে--সে কি গো!!

তারপর দুজন দুজনকে জড়িয়ে সে কি কান্না।ঘটনার আকস্মিকতায় আমিও কেমন ভ্যাবাচ্যাকা খেয়ে যাই।

দূর থেকে দুই মায়ের হৃদয় বিদারক আর্তনাদ দেখতে থাকি...