Samokal Potrika

কবিতারা জন্ম নেয়

আমাদের জীবন আবর্তে

ঠিক সমুদ্র মন্থনের মত-

কখনও অমৃত হয়ে

কখনও বা বিষ,

কখনও বা আঘাত বিষাদ বিরহের

হৃদয় পোড়া গন্ধ হয়ে

কিমবা প্রেম হরষ আনন্দধারার

স্রোতস্বিনী নদী হয়ে,

কখনও প্রেমিকার খোলা চুল হয়ে

কিমবা মধুর আলিঙ্গন চুম্বনের রেশ হয়ে,

কখনও বা একলা উদাসী মন হয়ে,

হয়তো বা এক বুক কষ্ট পাথর হয়ে

কিমবা একাকীত্বের নিস্তব্ধতা হয়ে,

কখনও বা পাহাড় নদীর প্রেমিক হয়ে

গোলাপ রজনীগন্ধায় মন রাঙিয়ে,

 

হয়তো বা প্রজাপতি পাখার

সাত রঙা কাব্য হয়ে।

 

কখনও কলম গর্জে ওঠে

জীবনের তাগিদে-

বুর্জোয়া, ঠগ, মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে

কখনও বা ওই বাঁকা মেরুদণ্ডগুলো

সোজা করতে,

সেচ্চার প্রতিবাদ হয়ে শব্দ গুলো

আগুনের গোলা হয়ে ছুটে যায়

অব্যর্থ নিশানায়।

 

কবিতাই তো আমাদের বাঁচতে শেখায়,

জীবনের সূক্ষ্মাতিসূক্ষ্ম আবেগগুলো

তুলে ধরে আমাদের মানস পটে,

জীবন জল তরঙ্গে সুর তুলে

কবিতা বেঁচে থাকে

আমাদের জীবনের জলছবি হয়ে।।