Samokal Potrika

আপেল পরিচিতি- 
আপেল একটি বিদেশী ফল। চীন, ভারত, অস্ট্রেলিয়া, সহ বিশ্বের ভিবিন্ন দেশে চাষ হয়ে থাকে। লাল, সাদা, কালো, হলুদ আপেল সহ বাহারী রংয়ের আপেল বাজারে দেখা যায়। আপেল দেখতে গোল। খেতে অনেক সুস্বাদু! আপেল খেতে কচকচ ও বালির কণার মতো নরমও হয়! আপেল টক মিষ্টিও আছে।

অনেকেই আপেলকে টমেটোর সাথে তুলনা করে থাকে। অবশ্য টমেটোর সাথে আপেলের তুলনা করে আপেলকে একটু নাস্তানাবুদ ও বিভ্রান্ত করছে। অনেকেরই ধারনা ৪টা আপেলে যত ভিটামিন আছে শুধু মাত্র একটি টমেটোতেই নাকি তার সম পরিমাণ ভিটামিন আছে।
যাই হোক, টমেটোর সাথে আপেলের তুলনা করে আপেলের কদর কমাতে চাইলেও, আপেলের কদর বেড়ে যায় কনে অথবা বিয়ের পাত্রী দেরার সময়।
হবু পাত্র যখন পাত্রী দেখতে যায় তখন পাত্রীর গাল দুটি আপেলের মতো দেখতে চায়। আসলে প্রকৃতপক্ষে পাত্র পাত্রীর গাল দুটি আপেলের মতো দেখতে চায় কি না সেটা পাত্র নিজেই ভাল জানেন!!!

আপেলের ব্যাবহার-
আপেল খাবার ফল হলেও। আপেল নিয়ে অনেক গল্প সিনেমায় অনেক কাহিনী গড়ে উঠেছে। বিশেষ করে আপেল দিয়ে প্রচুর বিজ্ঞাপনও করা হয়েছে। তবে সবচেয়ে বেশী বিজ্ঞাপন করা হয়েছে টুথপেস্ট কোম্পানী গুলি।
এক ভদ্র লোক অমুক কোম্পানীর টুথপেস্ট দিয়ে দাঁত ব্রাশ না করেই আপেল খাচ্ছিল এবং হটাৎ আপেলে কামর দিতেই তার দাঁত ব্যথা করতে শুরু হয়ে গেল!!
তারপর ঐ কোম্পানির লোক এসে বলল- দাঁতে ব্যথা?
হুম।
এখন থেকে এটা দিয়ে দাঁত ব্রাশ করবে। তারপর ইচ্ছে মতো আপেল খাবে!!
তারপর থেকে ঐ ভদ্র লোক তাদের কোম্পানীর টুথপেস্ট দিয়ে দাঁত ব্রাশ করছে আর আরামে বসে বসে আপেল খাচ্ছে!!

আর যাদের দাঁত ব্রাশ করার আগেই পোকায় দাঁত খেয়ে ফেলেছে। তারা আপেল দিয়ে জুস বানিয়ে খাচ্ছে। অনেকই মহিলাই আবার আপেল দিয়ে তরকারি রান্না করেও খাচ্ছে!!

আপেল প্রসঙ্গ-
সম্প্রতি দেশের দু এক জায়গায় অথবা কোথাও কোথাও আপেলের সংকট দেখা দিয়েছে!!
এতে করে ১৪০ টাকা কেজি আপেল বিক্রি হচ্ছে ২০০-২৫০ টাকা কেজি দরে!!! তার পরেও বাজারে কোন আপেল নেই!!!
এতে করে আপেল ক্রয় করতে আসা সকল ক্রেতারা  বিভ্রান্ত ও  ভোগান্তিতে ভোগছেন। তবে সবচেয়ে বেশী উদাস ও হতাস হচ্ছেন নতুন ও পুরান বিয়ে করা দম্পতী ( জামাই)  গুলি।
বিশেষ করে ঈদের ছুটিতে নতুন পুরান দম্পতী গুলি যে যার নিজ নিজ শশুর বাড়িতে কিংবা নিকতস্থ আত্মীয় স্বজনদের বাড়িতে যাবার পূর্ব মুহুর্তে মিষ্টি ও ফল ফলাদির সাথে আপেল না নিতে পারায় খুবই দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

এক প্রবীণ দম্পতী ছেলে মেয়ে নানী নাতনী সহ মোট ২০ জন সদস্য নিয়ে শশুর বাড়ি যাবার পথে বাজারে  আপেল না পেয়ে তিনি খুবই দুঃখ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।
একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, গত ৫০ বছর ধরে আমাদের দাম্পত্য জীবনে প্রতি বছর ঈদ আসলেই আমরা আমাদের শশুর বাড়ি যাই এবং প্রতি বার যাবার সময়ই আমি মিষ্টির সাথে আপেল মাল্টা নিয়ে যাই। কিন্তু এই বারই প্রথম অনিবার্য কারন বসত আপেল বিহীন শশুে বাড়ি যাচ্ছি। বাজারে আপেলের সংকট এটা যে কত বড় একটা লজ্জার কথা সেটা আমি আপনাদের বলে বোঝাতে পারব না। এই লজ্জটা আসলে কার?
এটা শুধু আমার নিজের লজ্জা নয়। আমি মনে করি এটা আমাদের মত যারা শশুর বাড়ি আপেল বিহীন যাচ্ছি সেই সমস্ত সকল জামাইদের লজ্জা!!

ভদ্র লোকের মুখে এমন কথা শুনে। ফল দোকানদার ঐ টিভিতে দেশের সমস্ত শাশুড়িদের উদ্দেশ্য করে বলেন, প্রিয় শাশুড়িরা ও আমার শ্রদ্ধেয় খালা আম্মারা, পবিত্র ঈদ উপলক্ষে আমাদের গুদাম ঘরে যত আপেল সংরক্ষণ  ছিল সেই সব আপেল বিক্রি হয়ে গেছে,  এবং সেই সাথে এবারের ঈদে আমাদের যত টন আপেল বিক্রি হবার কথা ছিল, অথবা আমাদের লক্ষ ছিল, তার চেয়েও দ্বিগুন আপেল বিক্রি হবার কারনে আজকে বাজারের এই ভংয়াভহ আপেলের সংকট দেখা দিয়েছে। আমাদের এত বেশী আপেল বিক্রি হবার কারনে ও আপরাদের জামাইদের হাতে আপেল তুলে না দিয়ে পারার কারনে আমরা আন্তরিক ভাবে দুঃক্ষিত ও লজ্জিত!!
প্রিয় শাশুড়ি ও খালা আম্মারা,  আপনাদের জামাইয়েরা আপনাদের বাড়িতে আপেল ছাড়া যাচ্ছে বলে আপনারা তাদের অসন্মান করবেন না।  বরং আপনারা আপনাদের জামাইদের সাথে আরো ভাল ব্যাবহার করুন। ও বেশী বেশী দেশী মুরগির রান ও কই মাছ খেতে দিবেন!! যাতে করে পরিবর্তে আপনাদের জামাই কার্টোন ভর্তি করে  এবং ট্রাক ভর্তি আপেল নিয়ে আপনাদের বাড়ি আসতে পারে সেই দোয়াও করবেন!!

এদিকে দেশে আপেল সংকটের কারনে এক ব্যাচেলর স্টোক করেছে বলে লোকের মুখে শোনা যায়। 
পুলিশের দেয়া তথ্যের সূত্রে যানা যায় যে, এক যুবক তার গার্লফ্রেন্ডের সাথে দেখা করার কথা ছিল। আর ঐ গার্লফ্রেন্ড তাকে আপেল নিয়ে যেতে বলেছিল। কিন্তু বাজারে আপেল না থাকার কারনে যুবক তার গার্লফ্রেন্ডের কাছে খালি হাতে যাওয়ার ফলে গার্লফ্রেন্ড রেগে বলল- তোমার কাছে আমি সামন্য কয়েকটা আপেল চেয়েছিলাম। আর তুমি তাই দিতে পারলে না। বিয়ের পর তুমি আমার এত এত সখ এত চাওয়া মিটাবে কী করে? এই বলে ঐ গার্লফ্রেন্ড যুবকের সাথে ব্রেক আপ করে। কিন্তু গার্লফ্রেন্ডের প্রেমে উন্মাদ যুবক প্রেমীক সেই ব্রেক আপের বিরহ সহ্য করতে না পেরে ততক্ষনাত স্টোক করে এখন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে!! কর্তব্যরত চিকিৎসক বলছে, যুবকের অবস্থা মারাত্মক ও ভয়াবহ!!

এদিকে দেশে আপেলের সংকটের রহস্য উদঘাটন করতে দেশের সমস্ত আপেল  বিশেষজ্ঞরা একসাথে বসে টেবিল টক করছে।

এদিকে দেশে আপেল সংকটের  জন্য বিরোধী দলের নেতা কর্মীরা সরকারি  দলকে দায়ী করছেন এবং তারা সকলেই মনে করছেন এটা নিশ্চয় সরকারি দলের কোন বড় ষড়যন্ত্র।

আর সরকারি দল বলছে,এসবই গুজব!! 
বিরোধী দল বিত্তিহীন কথা বার্তা বলে জনগণকে বিভ্রান্ত করছেন। আপনারা কেউ বিরোধী দলের কথায় কান দিবেন না।
বাংলাদেশে যত আপেল মওজুদ আছে তা দিয়ে আগামী ২০৪৮ সাল পর্যন্ত চলবে। বাংলাদেশে কোন আপেলের অভাব পরবে না।

এদিকে আপেল চাই, আপেল চাই, বলে বিক্ষোভ মিছিল করছে এক শ্রেণীর মানুষ!!
পুলিশ অর্ধ শতাধিক বিক্ষোভকারিদের গ্রেফতার করেছে বলে জানা যায়।

আপেল সংকটের আলাপ ছড়িয়ে পরেছে বাজার থেকে শুরু করে পাড়া মহল্লায়ও।  সাধারণ মানুষের মুখে মুখে শুধু একটাই কথা "এত এত আপেল গেল কই,  আপেল গেল কই??