Samokal Potrika

জন্মজাত কিছু চিহ্ন রাখা ছিল তার দেহে

সনাক্তের মর্গঘরে তার দুর্গন্ধ  

আতরও তার সহ্যশক্তি হারিয়েছে

কত না আপনজন তার থেকে দূরে সরে গেছে

জবুথবু তাল মাংস সবকিছুর বাইরে সমস্ত স্মৃতিচিহ্ন।

 

প্রকৃতির আতুর বিরহে আবার জড়ো হচ্ছে    

জৈব মাংস তাল, সৃষ্টি হচ্ছে নব কলেবর--

আবার তাল মাংস ছেনে ছেনে   

নতুন সাঁচের পুতুল ও তোমায় গড়তে গড়তে

আমি এক তাল মাটি হয়ে যাচ্ছি।

 

প্রজাপতি

  

একটি রঙচঙ প্রজাপতি আমার ঘরে ঢুকে ছিল,

তারপরে অবাঞ্ছিত পাখির খাঁচায় কি ভাবে সেটা ঢুকে গেল

ভাগ্গিস পাখিটা বহুদিন আগে মরে গিয়েছিল !

অনেক দিন দেখার পর এখন আর প্রজাপতি ভাবতে পারি না--  

তার পাখা ছুঁয়ে ছুঁয়ে দেখি--কি রঙ বৈচিত্রে ঢালা আছে পাত্র !  

তার রেশমী দেহ, তার পশমী অলঙ্কারের কারুকাজ দেখি--

তার দুটো পাখা ছুঁয়ে দেখি--কি মন্ত্রে জুড়ে আছে ভালবাসা !

তারপর খুঁটে দেখি সে লাল রঙ, সে চকরবকর সবুজ পাতার

কোমলতার মাঝে বুঝিনি কখন ছিড়ে গেছে তার পাখা,

আমার কর্কশ হাতের ধারে !

 

সহ্যের বাইরে কত ফুল পাতা কোমল গন্ধার বিসর্জিত হচ্ছে।

আজ প্রজাপতির একটি প্রতিকৃতি স্টাচু বানিয়ে রেখেছি,

আমার সেন্টার টেবিলে।