Samokal Potrika

কে তুমি মেঘবালিকা! চোখ দুটি বড় টানাটানা, সে চোখে কোন কাজল নেই। এমনি সে কালো হরিণী! কি তোমার রাঙা চুল! যে চুলের চারপাশে মনে আকাশের মেঘ জমে আছে!
বড় আশ্চার্য়! 
তুমি মানুষ না পরি! কি তোমার পরিচয়? কেন তুমি নিত্যদিন নিত্যকাল মোর সামনে এসে বার বার বিব্রত করো আমায়?
কেন তুমি প্রতিদিন রাঙা পায়ে আল্ত করে মোর কাছে এসে মিষ্টি করে হেসে আবার নিরবে পালিয়ে বেড়াও?
কেন অমন মায়াবী কালো হরিণী চোখে বারবার মোর পানে ফিরে তাকাও?
যে চাহনি আমায় বিব্রত করে বেড়ায়!
যে চাহনি আমায় বারবার আহত করে যায়!
যে চাহনির তীক্ষ্ণ দৃষ্টি আমার ব্যথিত হৃদয়ে বিধে আমায় আরো জ্বালায় পোড়ায়!

মেঘবালিকা কি চাও তুমি আমার পানে?
কি যাদু আছে তোমার ঐ দুটি মায়াবী নয়নে?
আচ্ছা, তুমি কি আমায় ভালোবাসো?
যদি ভাল নাই বা বাসো তবে, কেন বারবার আমার সামনে আসো?
কেন বারবার অমন করে মোর দিকে তাকিয়ে মিষ্টি করে হাসো?
কেন আড়াল করে রাখতে পারো না নিজেকে
কেন তোমাকে দেখলেই বুকের ভিতর কম্পন আর ঝড় উঠতে থাকে, সে কথা কি তুমি জানো?
যদি জানো তবে বলো, নয়তো বলো তুমি আমায় ভালোবাসো!
আর যদি ভালোবাসো তবে কেন দূরে দূরে থাকো?
যদি ভালোবাসো তবে আরো কাছে আসো..!