Samokal Potrika

মায়াবিনী!

বলেছিলে ডায়েরিতে শুধু তোমাকে নিয়ে লিখতে। মাত্র ২৮৮ পৃষ্ঠার একটা ডায়রিতে তোমাকে নিয়ে কী লিখব? তুমি কি শুধু ২৮৮ পৃষ্ঠার মধ্যেই সীমাবদ্ধ! 
উত্তর: নিশ্চয় না!
তাহলে এতো অল্পতে কী করে লিখব তোমার নাম? কী করে গাইবো তোমার গুণোগান!
তাইতো ডায়েরিতে লিখিনি তোমার নাম, আকাশের মতো বিশাল হৃদয় বিছিয়ে প্রেমের মাধুরী মিশিয়ে মনের মন্দিরাতে লিখেছি তোমার নাম। তুমি হয়তো জানো না! 'আবেগ ও ভালোবাসা কখনো লিখে শেষ করা যায় না। 'হৃদয়ের সকল কথা যদি লিখে শেষ করা যেতো। তাহলে জীবনটা শুধু মাত্র একটি ডায়েরির মধ্যে'ই সীমাবদ্ধ থাকত।'
যেটা কেউ চাইবে না। তুমিও না আমিও না। আমরা কেউ না! জানি জীবনটা অতি ক্ষুদ্র। তবুও এই সামান্যতম ক্ষুদ্র'ই অসামান্য হয়ে যায়।

প্রেমের অঞ্জলি মানুষকে স্বর্গের ধারে পৌঁছেতে সাহায্য করে। লোকে বলে প্রেম আসে স্বর্গ থেকে। আমি বলি না! প্রেম আসে দুটি মনের গভীর ভালোবাসা থেকে! আর স্বর্গ? সে তো প্রেমের মাঝে'ই লুকিয়ে থাকে! প্রেম ছাড়া স্বর্গ কখনো পরিপূর্ণ হতে পারে না। স্বর্গের স্বর্গীয় সুখ পেতে বিশুদ্ধ প্রেমের প্রয়োজন হয়। কিন্তু প্রেমে পড়তে স্বর্গের প্রয়োজন হয় না। প্রেম'ই স্বর্গ গড়ে তুলে। নিশ্চয় এক একটা প্রেম এক একটা স্বর্গের মহল।

ভালোবাসতে ভালোবাসা লাগে। প্রেম পেতে প্রেম দিতে প্রেমের প্রয়োজন হয়। হৃদয়ের ভাষা বুঝতেও একটা শান্ত সুন্দর হৃদয়ের বড় প্রয়োজন। 
তোমাকে নিয়ে ডায়রিতে কিছু'ই লিখিনি। যদি কখনো মুঁছে যায়? আকাশে কিছু  লিখিনি যদি অন্ধকারে ডেকে যায়? সাগরের নীল জলেও লিখিনি! যদি ঢেউয়ে তলিয়ে যায়? বাতাসে লিখিনি তোমার নাম! যদি হাড়িয়ে যায়? লিখেছি তোমার নাম প্রতিনিয়ত নিঃশ্বাসে মোর হৃদয়ের আরসিতে! যা কেউ দেখবে না, কেউ জানবে না, কেউ শুনবে না। শুধু জানবে তুমি আর আমি!
সেটা তুমি হৃদয় দিয়ে তা অনুভব করে নিও..

ইতি- নিত্য শুভার্থী!