Samokal Potrika

বুকের খাঁচায় অচেনা এক বাউল

কখন যে উঁৎ পেতে আছে;

কেউ জানে না, দেখে না কেউ

শুধু জানি আমি, বুঝি তার অস্তিত্ব

মাঝে মাঝে চিন চিন করে গুঁত মারে

কখনো কখনো টগবগিয়ে উঠে সারা দেহে;

শুভ্রতার সুখে হেসে উঠে গেরস্থালীর হ্নৎপিন্ড-

আবার নিষিদ্ধ ফলের লোভে স্নায়ুকোষে

তন্দ্রাচ্ছন্নে খায় উন্ঞ আলিঙ্গন। 

 

কি এমন পূর্ণতা পেতে চাই অচেনা বাউল?

অদৃশ্য একটি জগতের শেকড় আকঁড়ে

শিরার পরতে পরতে বোল তুলে ; 

কখনো কখনো শোঁ শোঁ শব্দে অন্তরীক্ষের মিনার ভাঙ্গে।

প্রাণের সাথে প্রাণ স্পন্দিত হয়ে 

অদ্ভুত আগ্রহে দখলে করে - হ্নৎপিন্ড

চূর্ণ -বিচূর্ণে অন্তর্ভেদী আত্মা

পরম মমতায় ভরে যুগল মন্দিরের বহরে ;

খন্ড খন্ড সুখে গড়ে ওঠে নাভীর তলদেশে

অমৃত সুধা!