Samokal Potrika

আমার কোনও উৎসব নেই 
আমার কোনও উচ্ছাস নেই.....
কেননা
রক্তাক্ত লাশের কোনও উচ্ছাস থাকে না ।
হে প্রপিতামহ , আপনার রক্তের অঙ্গীকারে আজ বলতে বাধ্য হচ্ছি - সত্যিই কোনও লাশের উৎসব বলে কিছু হয় না ।

জানি , আপনাদের অনেক সুনাম আছে , অত্যাশ্চর্য বর্গীয় কাঠামো আছে , আছে সম্মান , প্রতিপত্তি.....সব আছে.....
কিন্তু একটা জীবন্ত লাশের কোনও দাম আপনাদের কাছে নেই ।
একটা সময় আপনি আপনার জ্ঞান গরিমা প্রকাশ করেছেন তালপাতার পুঁথিতে । বহুবর্ণ উপাধিতে ভূষিত হয়েছেন দেশ জুড়ে ।
সাক্ষী থেকেছেন স্বয়ং ধর্মাবতার । 
ধর্মের কাষ্ঠে বলি দিয়েছেন বহু নিরীহ বিধর্মী....
মেনে নিতে পারেন নি আপনার চৌহদ্দিতে কোনও নিকৃষ্টকে ।

নারীকে রেখেছেন পর্দানশীন । যুগের পর যুগ চালিয়েছেন দুঃসহ অনুশাসন । নারী ছিল  নিতান্তই আপনাদের কাছে  বাড়িভূষণা ।
সবই জানি......কিন্তু চুপ থেকেছি
চুপ থেকেছি ভীষণ বাধ্যতায় ।

সেই একই শিক্ষা দিয়েছেন পিতামহ থেকে শুরু করে আজন্মকাল বর্গীয় পুরুষদের ।
ঈশ্বরের অগাধ আশীর্বাদ ঝরে পড়েছিল আপনাদের উপরে ।
করেছেন উৎসব , জনকল্লোলে মুখর করেছেন জমিদারি । আলোর জলসায় ভরিয়ে দিয়েছেন কালবৃত্তের ব্যাস ।

কিন্তু আজ আমার কোনও উৎসব নেই....
আমার নেই কোনও আবেগ বা  উচ্ছাস ।
কেননা 
রক্তাক্ত লাশের কোনও উৎসব থাকতে নেই ।

আর পিতামহ , আপনার কথা নাই-বা বললাম ।
আপনি তো আমাকে চেনেনই না ।

ছোট থেকে শুনে এসেছি , পিতা স্বর্গঃ পিতা ধর্মঃ.....
কিন্তু আমি দেখলাম , আমার শৈশবেই আপনি পৃথিবীর কোলে পাশ ফিরে , করে নিলেন চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত ।

আজ আমি আপনার কাছে প্রশ্ন রাখতে চাই -
চলেই যদি যাবেন তাহলে কেন আনলেন আমাকে ?
কেন দিলেন কালসর্প যোগ !
কেন দিলেন আপনাদের চিরাচরিত বর্গীয় আচরণ ?
কেননা আপনি আগেই জানতেন 'এ কর্মা' ভিন্ন ভাবনার....
তথাকথিত আপনাদের মত সুপুরুষ নয় ।

তবে জেনে রাখুন ধর্মাবতার.....
বোধহয় আপনারা এই ধর্মাত্মাকে ভুল ভেবেছেন ।
ভুল ভেবেছেন এই কারণেই কেননা 
তাকে আপনারা অনেক চেষ্টা করেও দিতে পারেননি আপনাদের আচরিত ধর্মমালা ।
প্রচার করেছেন 'কুলাঙ্গার' হিসেবে ।
তাই সযত্নে বলতে বাধ্য হচ্ছি...
আমার কোনও উৎসব 
নেই......আমার কোনও আনন্দ নেই ।
কেননা 
না-মানুষের কোনও উৎসব থাকে না ।
এই রক্তাক্ত জীবন্ত লাশের কোনও উৎসব থাকতে নেই ॥